ঢাকা মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

'গুম-খুন ও অগ্নিসংযোগের জন্য দায়ী জিয়া পরিবার'


নিউজ ডেস্ক
১২:২৬ - মঙ্গলবার, আগস্ট ২৩, ২০২২
'গুম-খুন ও অগ্নিসংযোগের জন্য দায়ী জিয়া পরিবার'

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, খালেদা জিয়া বলেছিলেন— শত বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসতে পারবে না, সেজন্য ২১ আগস্ট ঘটিয়েছে মা-ছেলে মিলে। এই ষড়যন্ত্র এখনো শেষ হয়নি। সেই ষড়যন্ত্রে একটা পরিবারই দায়ী, সেটা জিয়া পরিবার। দেশে গুম-খুন ও অগ্নিসংযোগের জন্যও দায়ী জিয়া পরিবার।

মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মায়া বলেন, আগস্ট মাস বাঙালির জন্য স্মরণীয় মাস। এ মাসে যেমন জাতীয় শোক দিবস তেমনি আগস্টে রবীন্দ্রনাথ, কাজী নজরুল ও জাতীয় নেত্রী আইভী রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী। শেখ কামাল, ফজিলাতুন নেছা মুজিবের জন্ম আবার আগস্ট মাসে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা বঙ্গবন্ধুর রক্তকে ভয় পায়, সেজন্য ষড়যন্ত্র করে। এজন্য ১৫ আগস্টে তিনটি পরিবারের ওপর হামলা করে— বঙ্গবন্ধু, শেখ মনি ও সেরনিয়াবাতের পরিবারের ওপর হামলা করে। অন্য কোনো নেতার ওপর সেদিন হামলা চালানো হয়নি।

আওয়ামী লীগের এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, এখন একান্ত দরকার ২০২৪ সালের নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার দিকে এগিয়ে যেতে হবে। স্বাধীনতাবিরোধী, রাজাকার, আল বদর, আল শামস কোনোদিন যেন ক্ষমতায় না আসতে পারে, তার জন্য ভোটের মাধ্যমে নৌকা মার্কাকে জয়যুক্ত করতে হবে।

আলোচনা সভায় গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শহিদুল্লাহ বলেন, ষড়যন্ত্র মামলায় বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানিরা হত্যা করতে চেষ্টা করেছিল। সেটাতে পাকিস্তানপন্থীরা সফল হয় পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টে। মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ থেকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ নিরাপদ আছে— উল্লেখ করে তিনি বলেন, মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশকে জঙ্গিবাদের কাছে হোঁচট খাওয়ার হাত থেকে শেখ হাসিনা রক্ষা করেছেন।

আলোচনা সভায় বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী কমরেড দিলীপ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ১৪ দলের সমন্বয়ক আমির হোসেন আমু, সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ডা. শহীদুল্লাহ, আনিসুর রহমান মল্লিকসহ ১৪ দলের নেতারা।