ঢাকা শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

খালেদাকে বাসায় থাকার সুযোগ দেওয়াই বড় মানবতা : চিফ হুইপ


নিউজ ডেস্ক
১৩:১৪ - বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২৫, ২০২২
খালেদাকে বাসায় থাকার সুযোগ দেওয়াই বড় মানবতা : চিফ হুইপ

সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১০ লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। যারা বিদেশ থেকে মানবতার সবক দিতে আসেন, তারা পারলে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে তাদের দেশে নিয়ে যান। খালেদা জিয়াকে বাসায় থাকার সুযোগ করে দেওয়াই তো বড় মানবতা।

বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৭তম শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিটি কাজই হচ্ছে আমাদের নিকট আদর্শ। সেই বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তারা শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি, একটি আদর্শকে হত্যা করেছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা আজ দেশের যে উন্নয়ন করেছেন তা বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে অনেক আগেই হতো।  

এ সময় তিনি বিএনপির সমালোচনা করে বলেন, আজ যারা আমাদের নির্বাচন নিয়ে জ্ঞান দেয়, তারা কী নির্বাচন করেছে, তা জাতি সবই জানে। যারা আজ মানবাধিকার নিয়ে কথা বলে তারা ক্ষমতায় থাকাকালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের কীভাবে নির্যাতন করেছে তা জাতি ভুলে যায়নি। আওয়ামী লীগ জনগণের ভালোবাসায় বিশ্বাসী। আওয়ামী লীগ জনগণের ভোটেই আবার ক্ষমতায় আসবে। 

আলোচনায় প্রধান বক্তা হিসেবে কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর সাথে তার স্মৃতিসমূহ সকলের সামনে তুলে ধরেন। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুকে বাংলার মুকুটহীন সম্রাট হিসেবে আখ্যায়িত করেন। 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় আছেন, ততদিন দেশের মানুষ শান্তিতে থাকবেন। যারা বলেন দেশ শ্রীলঙ্কা হবে, তাদের অর্থনীতি সম্পর্কে কোনো ধারণাই নাই। যারা হরতাল-অবরোধের কথা বলছেন তারা হরতাল করতেই পারেন, কিন্তু তাতে কিছু যায়-আসে না। 

আলোচনা আরও বক্তব্য রাখেন, হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যাপক ডা. ইফাত আরা, ডা. নূরনবী, ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, সরোয়ার হোসেন বাবু, হেদায়েতুল ইসলাম স্বপনসহ আরও অনেকে। 

আলোচনা সভায় ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মিজানুর রহমান কল্লোলের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. সামসুর রহমান।