ঢাকা শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

মেসি-নেইমারের জার্সি আগেই চেয়ে রাখলেন ২ ফুটবলার


নিউজ ডেস্ক
১১:১৩ - শুক্রবার, আগস্ট ২৬, ২০২২
মেসি-নেইমারের জার্সি আগেই চেয়ে রাখলেন ২ ফুটবলার

ফুটবলে ম্যাচ শেষে জার্সি বদল খুবই নিত্যনৈমিত্তিক বিষয়। খেলা শেষ হয়েছে, আর জার্সি অদল বদল চলছে না, এমন দৃশ্য গেল করোনাকাল বাদে খুব একটা দেখা যায় না ফুটবল বিশ্বে। 

জার্সিটা যদি হয় লিওনেল মেসি আর নেইমারের, তাহলে তো কথাই নেই! প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের আগ্রহের কেন্দ্রেই যে থাকে তাদের এই জার্সি, তা বলাই বাহুল্য। তবে ইসরায়েলের দুই খেলোয়াড় যা করলেন, তা বোধহয় আগে করেননি কেউ! মাকাবি হাইফার দুই খেলোয়াড় রীতিমতো আগেভাগেই চেয়ে রাখলেন আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের দুই তারকার জার্সি।

কাল রাতে ইস্তাম্বুলে হয়ে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপ পর্বের ড্র। সেখানেই ‘এইচ’ গ্রুপে জায়গা হয় পিএসজির। সঙ্গী হিসেবে ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা পায় জুভেন্তাস, বেনফিকা আর মাকাবিকে। 

এই গ্রুপ থেকে শেষ ষোলোয় যাবে কোন দল, সে প্রশ্নের জবাবে প্রায় সবাই মাকাবিকে রাখবে একেবারে শেষ স্থানে। শক্তি-সামর্থ্যে যে গ্রুপের বাকি দলগুলোর চেয়ে ঢের পিছিয়ে দলটি!

ইতিহাসও বলছে তেমন কিছুই। নিজেদের ইতিহাসে দুই বার মাকাবি খেলেছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। ২০০২-০৩ আর ২০০৯-১০ মৌসুমে। তবে তার একবারও গ্রুপ পর্বের গণ্ডি পেরোনো হয়নি তাদের।

সেই দলটিই নিজেদের গ্রুপে পেয়েছে পিএসজি, জুভেন্তাস আর বেনফিকাকে। পিএসজি নিজেদের লিগের চ্যাম্পিয়ন, জুভেন্তাস খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে গেলেও মাকাবিকে হারাতে খুব একটা বেগ পাওয়ার কথা নয় ম্যাসিমিলানো অ্যালেগ্রির দলের। বাকি রইল বেনফিকা, সেই দলটাও গেল মৌসুমে বার্সেলোনাকে হারিয়ে উঠে গিয়েছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোয়। ফলে এই বারও মাকাবির নকআউটে যাওয়ার সম্ভাবনাটা প্রায় নেই বললেই চলে।

সেই কারণেই হয়তো, মাঠের খেলার চেয়ে প্রতিপক্ষে থাকা তারকাদের জার্সি নিয়েই বেশি আগ্রহ মাকাবি খেলোয়াড়দের। দলটির ২৯ বছর বয়সী মিডফিল্ডার ওমের আতজিলি ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে সতীর্থকে সঙ্গে নিয়ে তুলেছেন এক ছবি, সেখানে মেসি আর নেইমারকে ট্যাগ করে তিনি লিখেছেন, ‘জার্সিটা আমাদের জন্য, প্লিজ!’

সেই পোস্ট অবশ্য কিছুক্ষণ পরেই অ্যাকাউন্ট থেকে মুছে দিয়েছেন তিনি। তবে ততক্ষণে যা হওয়ার তা হয়ে গেছে, ইউরোপীয় সংবাদ মাধ্যমে ছড়িয়ে গেছে তাদের এই জার্সির চাওয়া। মেসি নেইমারের যদি এই পোস্ট চোখে না-ও পড়ে, সংবাদটা যে নিশ্চিত চোখে পড়বে, তা একরকম নিশ্চিত। প্রতিপক্ষে থাকা এমন ‘ভক্তের’ চাওয়া মেসি আর নেইমার পূরণ করেন কি-না, তাই এখন দেখার বিষয়।