ঢাকা শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

নারায়ণগঞ্জে আ.লীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষ


নিউজ ডেস্ক
১০:৪৯ - সোমবার, আগস্ট ২৯, ২০২২
নারায়ণগঞ্জে আ.লীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার আকবর নগরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এগিয়ে গেলে তাদের লক্ষ্য করে ককটেল ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। পরে পুলিশ ২০ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোমবার (২৯ আগস্ট) সকাল থেকে ফতুল্লার বক্তাবলী এলাকার সামেদ আলী বাহিনী ও জাকির বাহিনীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ সকাল ৯টার দিকে বক্তাবলী এলাকায় গেলে তাদের লক্ষ্য করে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনো হয়। এছাড়াও টেঁটা ছুড়ে মারতে থাকে জাকির বাহিনী।  এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক রিজাউল হক দিপু বলেন, এলাকাভিত্তিক প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে সামেদ আলী বাহিনীর সঙ্গে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলীর সমর্থিত জাকির বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় গ্রুপকে ধাওয়া করে ছত্রভঙ্গ দেয়। এ সময় সামেদ আলী বাহিনী পিছু হটলেও একটি পরিত্যাক্ত ইটভাটায় অবস্থান নেয় জাকির বাহিনী।

তিনি বলেন, পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে তারা প্রথমে পুলিশের ওপর হামলার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ তাদের ধাওয়া করলে তারা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় ও টেঁটা ছুড়ে মারে। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। তবে এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

প্রসঙ্গত, এর আগেও ওই দুই গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ গত ২৩ আগস্ট বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে সামেদ আলী বাহিনী। এ সময় তাদের নিবৃত করতে চেয়ারম্যানের স্বজনরা এগিয়ে এলে তাদেরকে মারধর করে সন্ত্রাসীরা। এতে ছয়জন নারী-পুরুষ আহত হন।