ঢাকা শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

নওগাঁয় এসআই'র বিরুদ্ধে পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ


নিউজ ডেস্ক
১৫:৩৪ - বুধবার, আগস্ট ৩১, ২০২২
নওগাঁয় এসআই'র বিরুদ্ধে পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ


নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:: পুলিশই জনতা জনতাই পুলিশ, পুলিশ জনগণের বন্ধু। কিন্তু কিছু পুলিশ সদস্যদের বেলায় যেন ভিন্নরূপ। ঠিক তেমনই একটি ঘটনা ঘটিয়েছে নওগাঁর বদলগাছী থানার এসআই শ্রী নিহার চন্দ্র (নিঃ)। উঠে এসেছে তার বিরুদ্ধে  বিবাদীর সাথে লিয়াজু করে মিথ্যা তদন্ত প্রতিবেদন প্রেরণের অভিযোগ। শ্রী নিহার চন্দ্র বদলগাছী থানায় এসআই (নিঃ) বিপি নং-৯২২১২৩৩৭৭৮০ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে।

অভিযোগকারীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, কোট মাামলা নং-৩৭২ পি/২০২২২(বদলগাছী), স্মারক নং-৮২৩, তাং-২৬/০৭/২০২২ ইং, ফৌঃকাঃবিঃ-৯৮। মামলাটি তদন্ত প্রতিবেদন ও স্ট্রাম উদ্ধারের জন্য পুলিশ সুপার মহোদয়ের মাধ্যমে বদলগাছী থানায় প্রেরণ করেন বিজ্ঞ আদালত। বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান তদন্ত প্রতিবেদন ও স্ট্রাম উদ্ধারের দায়িত্ব দেন এসআই নিহার চন্দ্র (নিঃ) এর নিকট। তদন্ত কালীন সময়ে এসআই নিহার চন্দ্র (নিঃ) কোট মামলার বিবাদী মোঃ জালাল হোসেন কে থানায় ডেকে নিয়ে বিষয়টির সত্যতা সম্পর্কে জানতে পারে। এসআই এর নিকট কোট মামলার বিবাদী জালাল সবকিছু স্বীকার করেন এবং স্ট্রাম তার কাছে আছে বলে নিশ্চিত করেন। কোট মামলার বিবাদীর সাথে এসআই এর লিয়াজু হওয়ায় সরজমিনে তদন্তে না যেয়ে ও কোট মামলার সাক্ষীদের সাথে কোনরকম যোগাযোগ না করেই কোট মামলার বিবাদীর পক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন এবং প্রতিবেদনে স্ট্রাম সম্পর্কে শূন্য তল্লাশি তালিকা প্রস্তুত করে জমা দেন। এ বিষয়ে এসআই নিহার চন্দ্রের সাথে কথা বললে তিনি বলেন আপনার যদি তদন্ত প্রতিবেদন পছন্দ না হয় তাহলে আপনি কোটে গিয়ে নারাজী দেন। এসআই এর এমন ব্যবহারে বাদী অফিসার ইনচার্জ বদলগাছীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনিও বলেন আপনি নারাজী দেন। বিধায় আত্মীয় স্বজনদের সাথে পরামর্শ করে পুলিশ সুপার মহোদয়ের কার্যালয়ে উপস্থিত হইয়া অভিযোগ করিলাম।

আমরা শ্রী নিহার চন্দ্র এসআই (নিঃ) এর সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারি অভিযোগকারীর অভিযোগটির সত্যতা রয়েছে। সরেজমিনে না যেয়েই তিনি তদন্ত প্রতিবেদনটি লিখেছেন এবং জমা দিয়েছেন। 

আমরা কোট মামলার সাক্ষীদের সাথে কথা বলি। সাক্ষীগণ বলেন, এই মামলার ব্যাপারে কখনোই থানা থেকে কেউ আমাদের কাছে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আসেনি বা ফোনেও যোগাযোগ করেনি। যদি দাড়গা তদন্ত রিপোর্ট দিয়ে থাকে তাহলে তিনি মিথ্যা কথা বলেছেন।

অভিযোগকারীরর মামলার বিষয়ে আমরা বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমানের সাথে ফোনে যোগাযোগ করি (২৯/০৮/২০২২- বৈকাল ৩:৪০)। অফিসার ইনচার্জ বদলগাছী আমাদের বলেন, যেহেতু তদন্ত প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে আমাদের আর কিছু করার নেই তবে মামলার বাদী যদি নারাজী দিয়ে পুনরায় তদন্তের জন্য আমাদের কাছে পাঠাতে পারে তাহলে আমি এ বিষয়ে সঠিক ভাবে তদন্ত করে বিষয়টি দেখবো।

অভিযোগকারী বলেন, সাংবাদিকদের কাছে আমি এবং সাক্ষীগণ ভিডিও সাক্ষাৎকার দেওয়ায় আমাদের বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও ভয়ভিতী প্রদর্শন করছে। মূলত সেজন্যই আমি পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ দিয়েছি। আমার বিশ্বাস আছে পুলিশ সুপার মহোদয় বিষয়টির সুষ্ঠ তদন্ত করে সত্যের পক্ষে রায় দিবেন এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।