ঢাকা মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

শেরেবাংলার রাজনীতি করা আমার ভুল সিদ্ধান্ত ছিল: মিঠু


নিউজ ডেস্ক
১৬:২২ - বুধবার, আগস্ট ৩১, ২০২২
শেরেবাংলার রাজনীতি করা আমার ভুল সিদ্ধান্ত ছিল:  মিঠু

স্টাফ করেসপন্ডেন্টঃঃ চাঁদা না পেলে মাদক ও অস্ত্র দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ মিথ‍্যা বলে দাবি করেছেন রাজধানীর শেরেবাংলা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম মিঠু। তিনি বলেন,  আমার লোকের কাছে চাঁদা দাবি করলে আমি প্রতিবাদ করি। এরপর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। আমাকে রাজনৈতিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে চাঁদাবাজির মিথ‍্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছি।

বুধবার (৩১ আগস্ট )  রাজধানীর মীরপুরের মুক্তি হাউজিংয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন তিনি। সাইফুল ইসলাম মিঠুর বিরুদ্ধে গত ৩০ আগস্ট জাতীয় টেলিভিশনে প্রকাশিত সংবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। 

হাতাহাতির বিষয়টি স্বীকার করে সেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি বলেন, একটি টেলিভিশনে প্রদর্শিত সংবাদের প্রথম দিকে যে সিসি টিভি ফুটেজ দেখানো হয়েছে সেখানে হাতাহাতি হওয়ার বিষয়টি সত্য। তবে আমি চাঁদাবাজির জন‍্য হাতাহাতির করিনি। মূলত মূলত ঐ ব্যাক্তি মোল্লা পাড়ায় আমার এক পরিচিত ব্যাক্তির কাছে চাঁদা দাবি করে। আমি এ বিষয়ে তার কাছে জানতে চাইলে সে প্রথমে আমার দিকে তেড়ে আসে। যা ভিডিও ফুটেজ টি ভালোভাবে লক্ষ করলে দেখা যাবে। এরপর আমি আত্মরক্ষার জন‍্য হাতাহাতি করতে বাধ্য হই।

চাঁদাবাজির বিষয়ে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেয়া ব‍্যক্তিরা অভিযুক্তের অনুসারী ও পরিবারের লোক বলে দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, তারা ইতিপূর্বে আমাকে মামলা দিয়ে নানাভাবে হয়রানি করেছে। তাদের অনেকেই একাধিক মামলার আসামি।

সাইফুল ইসলাম মিঠু  দাবি করেন, সংশ্লিষ্ট সকলেই নিজ সংগঠন থেকে বহিষ্কৃত এবং একাধিক মামলার আসামি। সিসি ফুটেজে দেখা  শিহাবুল হোসেন শয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের মিরপুর থানার ১৩ ওয়ার্ডের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক। পরে তিনি  আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগে যোগ দিয়ে ঐ ওয়ার্ডের যুগ্ম আহবায়ক পদ বাগিয়ে নেয়। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, হত্যা সহ একাধিক মামলা রয়েছে।

এ আর সুলতান বায়েজিদ এর প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন ডাকাতি, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি সহ একাধিক মামলার আসামি সে। এসকল অভিযোগের কারণে তাকে ছাত্রলীগের মহানগর উত্তর থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।আর এ সকল কিছুর নেপথ্যেই রয়েছে মুশফিকুর রহমান উজ্জ্বল, অস্ত্র মামলায় গ্রেফতার হওয়ায় তাকে শেরেবাংলা থানা সেচ্ছাসেবক লীগ এর সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। তার বিরুদ্ধেও রয়েছে একাধিক মামলা। আর আবুল হাসান হাসু জানান উজ্জ্বল এর প্রতিহিংসার শিকার সে। তাকে বিভিন্ন সময় একধিক মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে তিনি।

এসময় শেরেবাংলা থানা সেচ্ছাসেবক লীগ এর সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান সাগর সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৩০ আগস্ট সাইফুল ইসলাম মিঠুর বিরুদ্ধে একটি টেলিভিশনে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। সেখানে অভিযোগ করা হয় চাঁদা চেয়ে না পেলে অস্ত্র, মাদক দিয়ে মিথ‍্যা মামলায় ফাঁসান তিনি।