ঢাকা শুক্রবার, অক্টোবর ৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

নওগাঁয় বস্তায় আদা চাষ পদ্ধতিতে লাভবান কৃষক


নিউজ ডেস্ক
১৫:০৫ - শনিবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২
নওগাঁয় বস্তায় আদা চাষ পদ্ধতিতে লাভবান কৃষক

মোসফিকা আক্তার, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ বাহারি স্বাদের খাবারের করতে মসলার বিকল্প নেই। স্বাদের খাবার রান্না করতে মসলা চাই-ই চাই। ঠিক তেমনি একটি মসলা হলো আদা। আদা বাটা ছাড়া মাংস রান্না প্রায় অসম্ভব। কিন্তু চাহিদা মেটাতে প্রতি বছরই বিদেশ থেকে এসম মসলা আমদানি করা হয়।


কিন্তু সুখবর হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ এই মসলার চাষ হচ্ছে উত্তরের সবজির রাজ্যে নওগাঁয়। কৃষি প্রধান দেশে এটি আমাদের কাছে খুব গর্বের বিষয় একজন পুরো জেলাজুড়ে বহু কৃষক ব্যাগিং পদ্ধতিতে আদা চাষে মনোযোগী হচ্ছেন। 

বস্তায় আদা চাষ পদ্ধতি সম্পর্কে কথা হয় নওগাঁর রানীনগর উপজেলার আদাচাষি জহুরুলের সঙ্গে। তিনি সংবাদ পরিক্রমাকে বলেন , একদিন আমি ইউটিউবে বস্তায় আদা চাষের একটা ভিডিও দেখি। সিদ্ধান্ত নেই নিজেই একবার এই পদ্ধতিতে আদা চাষ করে দেখব। ইউটিউবে দেখে দেখে মাটি প্রস্তুত করি আমি। আনুপাতিকহারে বালি, ছাই, জৈব সার ও মাটিসহ কিছু উপদান মিশিয়ে মাস খানেক রেখে দেই। এরপর নিজের কয়েক শতক জমিতে ১৬শটি ব্যাগে ভরিয়ে তাতে ৩টি করে চারা রোপণ করি।

তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, এই পতিত জমিতে খুবই সীমিত খরচ আর স্বল্প শ্রমে ফসল ঘরে তোলা যায়। ছাঁয়াযুক্ত পতিত জমিতেই এই ফসল সবচেয়ে ভালো হয়। একেকটি ব্যাগে কমপক্ষে ২ কেজি পর্যন্ত আদা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

জহুরুলেরমত জেলার আত্রাই, সদর, বদলগাছীসহ কয়েকটি উপজেলায় হয়েছে ব্যাগিং পদ্ধতিতে আদা চাষ। আত্রাই উপজেলার আরেক চাষি মিনহাজ উদ্দিন বলেন, নওগাঁর আবহাওয়ায় এই পদ্ধতি খুবই আশা দেখাচ্ছে। কেবলমাত্র কৃষকরাই নয়; ঘরের ছাদ কিংবা বাড়ির যেকোনো জায়গায় এটি রোপণ করা যায়। যা থেকে বাড়ির চাহিদা মেটানো সম্ভব।

আদা চাষে জমির চেয়ে রোগবালাইয়ের আক্রমণ হয় কম ব্যাগিং পদ্ধতিতে, বলছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সম্ভাবনার কথা ভেবে আগ্রহীদের প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দিচ্ছেন তারা। এখন পর্যন্ত নওগাঁর ১১ উপজেলায় অন্তত ৩৩ জন কৃষক ব্যাগিং পদ্ধতিতে আদা চাষ শুরু করেছেন বলেও ধারণা দেন এই কৃষি কর্মকর্তা।