ঢাকা মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

Popular bangla online news portal

কথা দিয়েছিল দশ টাকা, আজকে চাল ৭০ টাকা কেজি-হাফিজ


super admin
১:২২ - মঙ্গলবার, মার্চ ১৫, ২০২২
কথা দিয়েছিল দশ টাকা, আজকে চাল ৭০ টাকা কেজি-হাফিজ

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করছে এই সরকার। দুর্নীতির উৎসব করছে তারা। দেশে ভোটের অধিকার নেই। এ অধিকারের জন্য জনগণকে রাস্তায় নামতে হবে। আজকে সাহসী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাম তালিকায় নেই।

যুদ্ধের সময় যারা পালিয়েছিল তাদের নাম আজকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায়। আমরা কয়েকবছর ধরে বক্তব্য দিয়ে আসছি। তবে বক্তব্য দিয়ে দ্রব্যমূল্য কমানো যাবে না, দুর্নীতি থামানো যাবে না। সরকার কথা দিয়েছিল দশ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে, কিন্তু আজকে চাল ৭০ টাকা কেজি। 

সোমবার (২৮ ফেব্রয়ারি) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহানগর বিএনপি কর্তৃক দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন বলেন, আপনাদের শপথ নিতে হবে। আমরা মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে চাই। সে জন্যেই আমাদের আন্দোলন। বাড়ি গোপালগঞ্জ হলে কিংবা ছাত্রলীগের সদস্য হলে চাকরি পাওয়া যায়। মেধাবী ছাত্ররা চাকরি পায় না। হাসপাতালে চিকিৎসা নেই, আইসিইউ নেই তারা নাকি উন্নয়নের রোল মডেল। 

তিনি আরও বলেন, প্রথম ভোট চুরি হয় ডাকসুর নির্বাচনে। এত বছর পরেও সে দুঃশাসন শেষ হয়নি। জিয়া ছয় বছর ক্ষমতায় ছিলেন। তার মৃত্যুর পর দেশে কোথাও একটু জমিও ছিল না, ব্যাংকে টাকাও ছিল না। আমরা সেই জিয়ার সৈনিক। আমাদেরও আত্মসমালোচনা করা উচিত, কেন মানুষ রাস্তায় নামে না। সরকার পরিবর্তন যখন হয়, দুইবার মন্ত্রী ছিলাম দেশেই আছি। আমাদের পালাতে হয়নি। আজকে যদি একটা তত্বাবধায়ক সরকারের ঘোষণা আসে তাহলেই মন্ত্রীরা পালিয়ে যাবে। ভোটেরও দরকার হবে না।


কিছুদিন আগে নাসিক নির্বাচনে বিএনপি নেতা তৈমুর আলম খন্দকার অংশ নিয়েছিলেন উল্লেখ করে হাফিজ উদ্দিন বলেন, অত্যন্ত ত্যাগী এই নেতাকে কেন দল থেকে বাদ দেওয়া হলো জানি না। এ নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হয়েছেন, কিন্তু ইভিএমে তাকে পরাজিত করা হয়েছে। 

এ সময় মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কালামের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহসাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর আহমেদ টিটু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকার, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা এস এম শৈবাল হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েম ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান। 


এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমিনুর রহমান বাবু, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক মমতাজ উদ্দিন মন্টু, মহানগর যুবদলের সাবেক নেতা রানা মুজিব, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আবুল কাউসার আশা, জেলা মহিলা দলের সভাপতি রহিমা শরীফ মায়া, সাধারণ সম্পাদক রুমা আক্তার, মহানগর মহিলা দলের সভাপতি দিলারা মাসুদ ময়না, সাধারণ সম্পাদক আয়শা আক্তার দিনা, সাধারণ সম্পাদক মহানগর ছাত্রদলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক এ এইচ সৌরভ, সদর থানা ছাত্রদলের সভাপতি কাজী নাহিসুল ইসলাম সাদ্দাম।

একুশে সংবাদ/এসএস